Friday August 14, 2020

গতানুগতিক বাজেট : সিপিডি

a8 গতানুগতিক বাজেট : সিপিডি

নতুন অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে গতানুগতিক বলে মন্তব্য করেছেন সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন। শুক্রবার অনলাইনে বাজেট পর্যালোচনায় তিনি এ কথা জানান। তিনি বলেন, ‘২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য গতানুগতিক বাজেট প্রস্তাব করা হয়েছে। আগামী বাজেটে স্বাস্থ্য সামাজিক নিরাপত্তা ও কর্মসংস্থানে সৃজনশীল পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।’

ড. ফাহমিদা খাতুন বলেন, ‘সংকটের সময় সুশাসনের অভাব দেখা গেছে৷ সুশাসন নিশ্চিত জরুরি। সামষ্টিক অর্থনীতির কাঠামো বাস্তবের আলোকে হয়নি। সরকার এক ধরনের মোহ জিডিপির প্রবৃদ্ধির দিকে তাকিয়ে আছে।’ সিপিডি নির্বাহী পরিচালক জানান, ‘ভারত ৫ শতাংশের লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে। আমরা যেহেতু কভিডের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানিনা তাই সেটি মাথায় রেখে বাজেট করা উচিত।’ তিনি আরও জানান, ‘ব্যক্তি খাতে ঋণ প্রবাহ এপ্রিল পর্যন্ত ৮ দশমিক ২ শতাংশ অর্জিত হয়েছে। বাজেটে লক্ষ্যমাত্রা ১৬ দশমিক ৭ শতাংশ। অর্থাৎ ১২৫ শতাংশ বেশি টাকার সাথে ডলারের দাম স্থিতিশীল থাকবে। তবে টাকার মূল্যমান কিছুটা বাড়বে।’ সিপিডির নির্বাহী পরিচালক বলেন, ‘কর্মসংস্থানের সুযোগ বিশ্বে কমেছে। সেটি বিবেচনা করে রেমিট্যান্স প্রবাহের দিকে নজর দিতে হবে। সরকারি দায় দেনার ক্ষেত্রে ৬২. ৪ শতাংশ অভ্যন্তরীন ঋণ। বিদেশ থেকে ঋণ নিতে পারলে আমাদের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থাকবে। দায়ের পরিমাণ যাতে না বাড়ে সেদিকে সর্তক থাকতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ব্যক্তিখাতে ঋণ প্রবাহ, জিডিপি প্রবৃদ্ধির দিকে নজর না দিয়ে আগামী বাজেটে কেমন মানুষের জীবন বাঁচাতে পারবে এটা মূল লক্ষ্য হতে হবে। জিডিপি প্রবৃদ্ধি থেকে বের হয়ে দারিদ্র্য দূরীকরণ ও কর্মসংস্থানের দিকে নজর দিতে হবে। সরকারের ব্যয় আয়ের চেয়ে অনেক বেশি। বাজেটের রাজস্ব আহরণ ও ব্যয়ের সমযোচ্যতার দিকে নজর দিতে হবে।’

Filed in: অর্থ-বানিজ্য