জবি উপাচার্যের ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও উন্নয়ন ভাবনা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন | oknews24 a leading online newsportal
Wednesday August 22, 2018

জবি উপাচার্যের ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও উন্নয়ন ভাবনা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

1102 জবি উপাচার্যের ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও উন্নয়ন ভাবনা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

গত রবিবার বিকাল ৫টায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও কলামিস্ট অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান রচিত ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও উন্নয়ন ভাবনা’ নামক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৮’-এ শহীদ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মোড়ক উন্মোচন মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয়।

বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী নাজমা আক্তার প্রধান অতিথি হিসেবে গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেন। এসময় বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক আনোয়ারা সৈয়দ হক, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, শিক্ষক, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক, বিভিন্ন দপ্তরের প্রধানগণ এবং কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।
মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস। উল্লেখ্য, গ্রন্থটির প্রকাশক মেরিট ফেয়ার প্রকাশনী। অমর একুশে গ্রন্থমেলায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মেরিট ফেয়ার প্রকাশনীর ৪৮০-৪৮২ স্টলে এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টলে (বাংলা একাডেমি, স্টল # ১৫) পাওয়া যাচ্ছে।
এছাড়াও ড. মীজানুর রহমান রচিত ১৯৯২ সালে বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত তাঁর গবেষণাধর্মী গ্রন্থ ‘কৃষিপণ্যের বাজারজাতকরণ’ পাঠকপ্রিয়তা অর্জন করে। পরবর্তীতে তিনি ‘বাজারজাতকরণ’, ‘বাজাজাতকরণ নীতিমালা’, স্নাতক বাজারজাতকরণ’ শীর্ষক আরো তিনটি গ্রন্থ রচনা করেন এবং পাঠকপ্রিয়তার কারণে বাজারজাতকরণ গ্রন্থের একটি সহজ সংস্করণও তিনি তৈরি করেন, যা মার্কেটিং বিভাগের বাইরের পাঠকদের নিকটও অত্যন্ত সমাদৃত। ২০১৭ সালে প্রকাশিত ‘বঙ্গবন্ধু, বাঙালি ও বাংলাদেশ’ গ্রন্থটি পাঠকমহলে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।
সহস্র বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চেতনার যে শিখা অনির্বাণ প্রজ্বলিত করেছিলেন, শেখ হাসিনা সব ভয় ও প্রলোভনকে উপেক্ষা করে ইস্পাত কঠিন দৃঢ়তায় যে চেতনার অবিনাশী ধারাকে চিরন্তন করে তোলার প্রয়াস অব্যাহত রেখেছেন। এ যাত্রার যে বাধা ও অসুবিধা, বিভিন্ন ক্ষেত্র ও পর্যায়ে যে ধরনের প্রতিবন্ধকতা ও ষড়যন্ত্র সেগুলোর লেখকের পর্যবেক্ষণ ও প্রত্যক্ষণ গ্রন্থটিতে স্থান পেয়েছে। কালের আবর্তনে এ বিশ্লেষণ ও মূল্যায়ন অনেকগুলোই হয়তো কিছুটা অতীত, কিছু কিছু হয়তো ইতোমধ্যে বাস্তবায়তি হয়েছে। কিন্তু সমকালীন প্রেক্ষাপটে, সে সময়ের বিবেচনায় বিষয়গুলো ছিল ভীষণ প্রায়োগিক ও প্রাসাঙ্গিক। সে দৃষ্টিকোণ থেকৈই জাতীয় দৈনিকসমূহে প্রকাশিত কলামসমূহের সমন্বয়ে লেখকের এই সংকলন।
Filed in: সাহিত্য সংস্কৃতি