Wednesday October 17, 2018

শতভাগ ফেল করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে

144 শতভাগ ফেল করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছেএবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় একজনও পাস করতে পারেনি- এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১০৯টি যা গতবারের তুলনায় ১৬টি বেশি।  গত বছর এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৯৩টি।

একই সঙ্গে শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৬৯২টি কমেছে। এবার শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা এক হাজার ৫৭৪টি। গত বছর ২ হাজার ২৬৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সবাই পাস করেছিল।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের পরিসংখ্যান থেকে এ তথ্য জানা গেছে। রোববার দুপুরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশ করেন।

এবার ৩ হাজার ৪১৫টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ২৮ হাজার ৫৫৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিয়েছে।

গত কয়েক বছরের মতো এবারও আট বোর্ডের মধ্যে শতভাগ পাস প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা রাজশাহী বোর্ডে সর্বোচ্চ। এ বোর্ডের শতভাগ পাস প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২০৬টি। এর পরের অবস্থানে রয়েছে ঢাকা বোর্ড। এ বোর্ডের ১৮৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সবাই পাস করেছে।

এ ছাড়া শতভাগ পাস বিদ্যালয়ের সংখ্যা যশোর বোর্ডে ৭৩, কুমিল্লা বোর্ডে ৭৪, চট্টগ্রাম বোর্ডে ২৭, বরিশাল বোর্ডে ৫০, সিলেট বোর্ডে ২৩ ও দিনাজপুর বোর্ডে ৮৪টি।

এ ছাড়া মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের ৭৫৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সবাই পাস করেছে। কারিগরি বোর্ডে শতভাগ পাস বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৯৬টি।

এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় রাজশাহী ও যশোর বোর্ডে একটি করে শূন্য পাস বিদ্যালয় রয়েছে। এ ছাড়া ঢাকা ও বরিশাল বোর্ডে ৩টি করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং দিনাজপুরে ৫টি প্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করতে পারেনি। কুমিল্লা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বোর্ডে কোন শূন্য পাস বিদ্যালয় নেই।

মাদ্রাসা বোর্ডের ৯৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করতে পারেনি। কারিগরী বোর্ডে কোনো শূন্য পাস প্রতিষ্ঠান নেই।

এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় দশ বোর্ডে গড় পাসের হার ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। এরমধ্যে আটটি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডে এসএসসিতে পাসের হার ৭৯ দশমিক ৪০ শতাংশ, মাদ্রাসা বোর্ডে পাসের হার ৭০ দশমিক ৮৯ ও কারিগরি বোর্ডে ৭১ দশমিক ৯৬ শতাংশ।

Filed in: শিক্ষা