ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক আজ বসন্ত | oknews24 a leading online newsportal
Wednesday August 22, 2018

ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক আজ বসন্ত

192 ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক আজ বসন্ত

আজ পহেলা ফাল্গুন, ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিন। কবি বলেছেন- ফুল ফুটুক না ফুটুক আজ বসন্ত। তবে এবারও ফুটেছে ফুল, প্রকৃতি সেজেছে নতুন রূপে।

ফাল্গুনের হাত ধরেই ঋতুরাজ বসন্তের আগমন। শীতের খোলসে ঢুকে থাকা কৃষ্ণচূড়া, রাধাচূড়া, ডালিয়া এখন অলৌকিক স্পর্শে জেগে উঠেছে। লাল, হলুদ আর বাসন্তী রঙে প্রকৃতির সাথে নিজেদের সাজিয়ে আজ বসন্তের উচ্ছলতা ও উন্মাদনায় ভাসছে বাঙালি।

বসন্ত অনেক ফুলের বাহারে সজ্জিত হলেও গাঁদা ফুলের রঙকেই এদিনে তাদের পোশাকে ধারণ করে তরুণ-তরুণীরা। সঙ্গে খোঁপায় ফুলের মালার শোভা বাড়ায় বহুগুণ। বসন্তের আনন্দযজ্ঞ থেকে বাদ যায় না গ্রাম্যজীবনও। আমের মুকুলের সৌরভে আর পিঠাপুলির মৌ মৌ গন্ধে গ্রামে বসন্তের আমেজ একটু যেন বেশিই। আর এভাবেই ধরায় নেমে আসে ঋতুরাজ বসন্ত।

অমর একুশে গ্রন্থমেলা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, শাহবাগ, চারুকলা চত্বর, ধানমন্ডি লেকসহ নানা জায়গায় জড়ো হয়ে তরুণ-তরুণীসহ নানান বয়সী মানুষ প্রকৃতির এ অপরূপ সৌন্দর্য্যকে বরণ করে নিজের মতো করে।

বাংলার প্রকৃতি, আমাদের ভাষা, সমাজ, সংস্কৃতি ও সাহিত্যের বড় স্থান দখল করে আছে বসন্ত। বসন্ত মিলনের ঋতু, আবার বিরহেরও ঋতু। শীতের জবুথবু প্রকৃতির অবসান ঘটিয়ে দক্ষিণ সমীরণের প্রবাহ শুরু হয় বসন্তে, এর সঙ্গে দোলায়িত হয় মানুষের মনও।

এ সময়ে জীবন রসায়নে যেন কী এক পরিবর্তন আসে। হৃদয়ে সৃষ্টি হয় প্রণোদনা, নাড়া দেয় এক অব্যক্ত আবহ। কেবল মানব-মানবীর মনেই নয় বৃক্ষরাজি, পক্ষী ও প্রাণিকুলেও এ হাওয়া দোলা দেয়।

ব্যস্ততা ঠেলে অবসরের নাগরিক জীবনে ঢুঁ মারছে প্রেম বিরহ আর অনুরাগের সুর। বসন্ত বরণের এ উৎসবে নাচ গান কবিতার পাশাপাশি নিজেদের গ্রামীণ ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি আরো যোগ করার কথা জানান প্রকৃতিবিদরা।

প্রসঙ্গত, মোগল সম্রাট আকবর প্রথম বাংলা নববর্ষ গণনা শুরু করেন ১৫৮৫ সালে। নতুন বছরকে কেন্দ্র করে ১৪টি উৎসবের প্রবর্তন করেন তিনি। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বসন্ত উৎসব। তখন অবশ্য ঋতুর নাম এবং উৎসবের ধরনটা এখনকার মতো ছিল না। তাই পহেলা ফাল্গুন বা বসন্ত উৎসব কেবল উৎসবে মেতে ওঠার সময় নয়। এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে বাংলার গৌরবময় ঐতিহ্য, বাঙালি সত্তা। সে ঐতিহ্যের ইতিহাসকে ধরে রাখতে পারলেই বসন্ত উৎসবের সঙ্গে নতুন প্রজন্ম ছড়িয়ে দিতে পারবে বাঙালি চেতনাকে।

Filed in: বিবিধ