Monday July 22, 2019

‘চড় মারতে না পারলে কিসের প্রেম’ মন্তব্যে নাখোশ সামান্থা

145 ‘চড় মারতে না পারলে কিসের প্রেম’ মন্তব্যে নাখোশ সামান্থা

‘নারীবিদ্বেষী’, ‘পুরুষতান্ত্রিক’ সিনেমা আখ্যা দিয়ে চিত্রসমালোচকদের অনেকেই কঠোর সমালোচনা করলেও বক্স অফিসে ব্লকবাস্টার হয়েছে শহিদ কাপুরের নতুন সিনেমা ‘কবির সিং’। বিশেষ করে নারীবাদীরা কঠোর সমালোচনা করছেন এই ছবির।

এরই মধ্যে গতকাল সমালোচনার জবাব দেন পরিচালক সন্দীপ রেড্ডি বাঙ্গা। নিজের সিনেমার পক্ষে সাফাই গাইতে গিয়ে বলেন, ‘যদি চড় না মারার স্বাধীনতাই না থাকে, তবে কিসের প্রেম।’ তাঁর মন্তব্যে তোলপাড় বিনোদন দুনিয়া।

পরিচালক সন্দীপ রেড্ডির প্রেমবিষয়ক মত মেনে নিতে পারেননি দক্ষিণী চলচ্চিত্র অঙ্গনের জনপ্রিয় নায়িকা সামান্থা আক্কিনেনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় তেলেগু তারকা এ প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘সত্যিই বিরক্তিকর।’

মুক্তির পর ১৫ দিন পার হলেও ভারতের বক্স অফিসে শাসন জারি রেখেছে ‘কবির সিং’। সন্দীপ রেড্ডি বাঙ্গা পরিচালিত এ ছবির নায়ক শহিদ কাপুর, আর নায়িকা ‘লাস্ট স্টোরিস’ খ্যাত কিয়ারা আদভানি। একই পরিচালকের তেলেগু হিট ‘অর্জুন রেড্ডি’র হিন্দি ভার্সন ‘কবির সিং’। দুই সপ্তাহে এ ছবির আয় ২২৫ কোটির বেশি।

সিনেমার গল্পে রয়েছে, সাবেক প্রেমিকা প্রীতির অন্যত্র বিয়ের পর ছন্নছাড়া হয়ে যায় কবির সিং। এরপর আত্মবিধ্বংসী পথ বেছে নেয় কবির। সারাক্ষণ মদ আর ধূমপানে আসক্ত হয়ে পড়ে। হয়ে পড়ে আত্মনিয়ন্ত্রণহীন।মারপিটের দৃশ্যও রয়েছে। শহিদ ও কিয়ারার চুমুর দৃশ্য ঝড় তুলেছে অন্তর্জালে।

একটি দৃশ্যে দেখা যায়, প্রীতির পরিবার যখন কবিরকে প্রত্যাখ্যান করে, তখন কবিরকে ছেড়ে না যাওয়ার জন্য প্রীতি অনুরোধ করে। তবুও প্রত্যাখ্যানের রাগে-ক্ষোভে প্রীতিকে রাস্তায় প্রকাশ্যে চড় মারে কবির।

সিনেমায় ‘শারীরিক নির্যাতন’ নিয়ে সমালোচনা প্রসঙ্গে সন্দীপ বলেন, ‘সে (কিয়ারা) ওকে (কবির) চড় মারে কারণ ছাড়াই। কিন্তু ওকে চড় মারার পেছনে তো কবিরের কারণ আছে। যদি নিজ নারীকে আপনি চড়ই মারতে না পারেন, যেখানে ইচ্ছে ছুঁতে না পারেন, চুমু দিতে না পারেন, তবে সেখানে আমি আবেগই দেখি না।’

ভালোবাসা সম্পর্কে পরিচালকের মতকে কেউ কেউ প্রশংসা করলেও সমালোচনাও কম হচ্ছে না অন্তর্জালে। সন্দীপ রেড্ডির ওই মন্তব্য মেনে নিতে পারেননি অনেকে। মেনে নিতে পারছেন না দক্ষিণী সুন্দরী সামান্থাও। সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে

Filed in: বিনোদন