Friday June 20, 4842

২৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আসছেন এডিবির প্রেসিডেন্ট

1213 ২৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আসছেন এডিবির প্রেসিডেন্ট

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) প্রেসিডেন্ট তাকিহিতো নাকাও দুই দিনের সফরে আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আসছেন। আজ শুক্রবার বিকেলে এডিবির ঢাকা কার্যালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, এডিবি প্রেসিডেন্ট তার সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতসহ সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী ও উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। এ ছাড়া তিনি এডিবির অর্থায়নে বাংলাদেশে বাস্তবায়নাধীন কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পও ঘুরে দেখবেন। উল্লেখ্য, এডিবি বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগীদের মধ্যে অন্যতম। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তাকিহিতো নাকাওয়ের এই সফর হবে দুই দিনের। ২৭ ফেব্রুয়ারি তিনি ঢাকায় আসবেন। সফর শেষে ২৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন।
এডিবির ঢাকা কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, আর্থ-সামাজিক বিভিন্ন সূচকে সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ প্রশসংনীয় অগ্রগতি অর্জন করেছে। বাংলাদেশের এই ‘সাকসেস স্টোরি’ কীভাবে পৃথিবীর অন্যান্য দেশে প্রয়োগ করা যায় এডিবির প্রেসিডেন্ট তা জানতে আগ্রহী। তার এই সফরে বাংলাদেশের শিক্ষাক্ষেত্রের উন্নয়নে করণীয় নিয়ে আলোচনা হতে পারে। প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১৪ জানুয়ারি সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সঙ্গে তার দপ্তরে সাক্ষাৎ করেছিলেন এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন পরকাশ। বাংলাদেশের শিক্ষাক্ষেত্রের উন্নয়ন সর্ম্পকে জানতে এডিবি প্রেসিডেন্ট আগ্রহী বলে জানিয়েছিলেন।
এর আগে গত ১৭ জানুয়ারি বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ফোরামের (বিডিএফ) সভায় যোগ দিতে ঢাকায় আসেন এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্ট ওয়েনচাই ঝাং। ওই সময় তিনি জানান, আঞ্চলিক উনয়নকে প্রাধান্য দিয়ে বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়নে চলমান সহায়তা অব্যাহত রাখবে এডিবি। পরিবহণ, জ্বালানী ও নগর সেবার পাশাপাশি দক্ষতা উন্নয়ন, কর্মসংস্থান, সৃষ্টি ও ব্যাক্তি খাতে বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে সহায়তা করবে সংস্থাটি। বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) থেকে বেরিয়ে গেলেও সহজ শর্তে ঋণ পেতে অসুবিধা হবে না। পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার জন্য পর্যাপ্ত সময় বাংলাদেশ পাবে। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের উন্নয়নে আগামী পাঁচ বছরে ৮০০ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা দেবে সংস্থাটি। বাংলাদেশি মূদ্রায় এর পরিমাণ প্রায় ৬৪ হাজার কোটি টাকা।
১৯৭৩ সালে বাংলাদেশ এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) সদস্য হওয়ার পর থেকেই আন্তর্জাতিক সংস্থাটি বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে ঋণ ও অনুদান সহায়তা প্রদান করে আসছে। এ পর্যন্ত বাংলাদেশকে এডিবির ঋণ সহায়তার পরিমাণ প্রায় ১৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এডিবি বাংলাদেশে প্রধানত বিদ্যুৎ, জ্বালানি, স্থানীয় সরকার, পরিবহন, শিক্ষা, কৃষি, পানিসম্পদ, সুশাসন, স্বাস্থ্য ও আর্থিক খাতে ঋণ সহায়তা প্রদান করে থাকে।
Filed in: অর্থ-বানিজ্য